1. admin@banglatv21.com : admin :
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪২ অপরাহ্ন

ভৈরবে ফেন্সিডিল ও বিদেশি মদ, গাঁজাসহ চিহৃিত ৬ মাদক ব্যবসায়ী আটক

প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ১০৬ বার পঠিত

 

রিপোর্ট,মোঃ ছাবির উদ্দিন রাজু ভৈরব কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কিশোরগঞ্জের ভৈরবে র‌্যাব ১৪ এর সিপিসি ২, ক্যাম্পের মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে
১৩৫ কেজি গাঁজা ও ৬৮ বোতল ফেন্সিডিল এবং ৩ বোতল বিদেশী মদসহ ৬ জন মাদক কারবারিকে আটক করা হয়েছে। শনিবার ২৭ জানুয়ারী সকালে ভৈরব পৌর শহরের কমলপুর পূর্বপাড়া সিএনজি স্ট্যান্ড ও জগন্নাথপুর তাতারকান্দি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করা হয়। আটক ৬ মাদক কারবারি হলেন পৌর শহরের পঞ্চবটি এলাকার ওহিদ মিয়ার ছেলে মোজাম্মেল হক ও একই এলাকার বাবুল মিয়ার ছেলে হৃদয় মিয়া কমলপুর আমলাপাড়া মৃত হোসেন আলীর ছেলে সজল আলী তাতারকান্দি এলাকার মৃত জসিম উদ্দিন স্ত্রী হনুফা বেগম তার পুত্র বঁধু পায়েল মিয়ার স্ত্রী তামান্না মৃত জসিম উদ্দিনের মেয়ে শারমিন অক্তার । শনিবার ২৭ জানুয়ারী বিকেলে ভৈরব র‌্যাব ক্যাম্পে ক্যাম্প কমান্ডার লেফটেন্যান্ট, বিএন মোহাম্মদ ফাহিম ফয়সাল লিখিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান। তিনি আরো বলেন,২৭ জানুয়ারী সকাল ৭ ঘটিকা হতে সাড়ে ৮ ঘটিকা পর্যন্ত র‌্যাব ১৪, সিপিসি২, ভৈরব ক্যাম্প, কিশোরগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানাধীন কমলপুর পূর্বপাড়া সিএনজি স্ট্যান্ড এর সামনে হতে অভিযান পরিচালনা করে ভৈরব থেকে ময়মনসিংহের উদেশ্যে গমনকৃত একটি সিএনজি আটক করেন এবং মাদক ব্যবসায়ী মোজাম্মেল হক পিতা ওহিদ মিয়া, হৃদয় মিয়া সজল আলী কে আটক করেন। এসময় ধৃত আসামীদের দখল থাকা আটককৃত সিএনজি টি তল্লাশি করে সিএনজির ভেতরে বিশেষ কায়দায় রক্ষিত অবস্থায় ৩৫ কেজি মাদকদ্যব্য গাঁজা জব্দ করা হয়। একই সঙ্গে ২৭ জানুয়ারী তারিখ সকাল ৯ ঘটিকা হতে ১১ ঘটিকা পর্যন্ত র‍্যাব ১৪, সিপিসি ২, ভৈরব ক্যাম্প, কিশোরগঞ্জ এর আভিযানিক দলটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানাধীন জগন্নাথপুর তাতারকান্দি সাকিনস্থ আসামী হনুফা বেগম এর বসত বাড়ির উত্তর মূখী টিনের দোচালা ঘরের পূর্ব দিকের রুমে অভিযান পরিচালনা করে মাদক ব্যবসায়ী হনুফা বেগম ও তার পুত্রবঁধু তামান্না, শারমিন অক্তারকে আটক করেন এসময় ধৃত আসামীদের দখল থেকে ১০০ কেজি গাঁজা, ৬৮ বোতল ফেন্সিডিল এবং ৩ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করে জব্দ করা হয়। ধৃত আসামীগন দীর্ঘদিন যাবৎ মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল, বিদেশী মদ ও মাদকদ্রব্য গাঁজা সংগ্রহ করে উক্ত রুমে সংরক্ষণ করে এবং তাদের সহযোগীদের মাধ্যমে ঢাকা’সহ দেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে বিক্রয় করে মর্মে স্বীকার করে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য এবং গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। পারদর্শিতার সাথে আভিযানিক কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে দেশের অভ্যন্তরে অপরাধ দমনে সাফল্যের নিদর্শন রেখেছেন র‍্যাব। ভবিষ্যতেও চলো যাই যুদ্ধে মাদকের বিরুদ্ধে এই মূলমন্ত্রে র‍্যাবের মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযাত্রা অব্যহত থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
All rights reserved © 2021-2023
Design By Raytahost